counter ‘লাথি মেরে ঘুষ দান’, তা-ও পুলিশকে!

বুধবার, ২১শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘লাথি মেরে ঘুষ দান’, তা-ও পুলিশকে!

  • 11
    Shares

স্পোর্টস ডেস্ক : বাংলা প্রবাদ আছে, ‘গরু মেরে জুতো দান’। যার অর্থ দাঁড়ায় ‘নিদারুণ অপমান করে সামান্য উপায়ে তুষ্ট করার চেষ্টা।’ ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড অধিনায়ক হ্যারি ম্যাগুয়ার এমনই এক কাণ্ড ঘটিয়েছেন পুলিশের সঙ্গে। লিগ থেকে বিদায় নেওয়ার পর ছুটি কাটাতে গ্রিসের মাইকোনেস দ্বীপে যান ম্যাগুয়ার। সেখানেই গতকাল প্রথমে ব্রিটিশ কয়েকজন নাগরিক ও পরে গ্রিক পুলিশের সঙ্গে মারামারি করেছেন ২৭ বছর বয়সী এই ইংলিশ ডিফেন্ডার। এবার ব্রিটিশ গণমাধ্যম জানিয়েছে তাঁর কাণ্ডের বিস্তারিত।

ঘটনা শুরুর বিষয়ে এক প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে ‘দ্য সান’ জানিয়েছে, ‘সেদিন শুরু থেকেই কিছু লোক হ্যারিকে উসকানি দিচ্ছিল। তারা ইউনাইটেডকে গালি দিচ্ছিল। তারা হ্যারিকে খেপানোর চেষ্টা করছিল। সঙ্গে থাকা নারীদের নিয়েও কটূক্তি করছিল। হ্যারি খেপে যায় এবং দুই পক্ষের মাঝে মারামারি শুরু হয়। উত্ত্যক্তকারীরা মাটিতে পড়ে গেলে হ্যারি পেছন থেকে লাথি মারা শুরু করেন। তাঁর সঙ্গের মেয়েরা চিৎকার শুরু করে।’

পরের ঘটনা নিয়ে তিনি বলেন, ‘একসময় দুই পুলিশ অফিসার এসে থামানোর চেষ্টা করায় হ্যারি খেপে গিয়ে বলতে শুরু করেন, ‘গেট আউট! তোমাদের মাথা ঘামানোর দরকার নেই।’ পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করতে চাইলে পুলিশদের মারা শুরু করেন। সেই সঙ্গে চিৎকার করে গালি দিচ্ছিলেন। আরো দুই-তিনজন পুলিশ আসে, কিন্তু হ্যারি এত শক্তিশালী আর এতটাই খেপে উঠেছিলেন যে তাঁকে থামানো যাচ্ছিল না। পাঁচজনের বেশি পুলিশ লেগেছে তাঁকে থামাতে। অন্তত একজন পুলিশ আহত হয়েছে।’

সেই প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনার সঙ্গে মিল পাওয়া যায় পুলিশের মুখপাত্র পেত্রোস ভ্যাসসিলাকিসের বর্ণনার। তিনি বলেছেন, ‘যখন ঝগড়া থামল, তখন ফুটবলারের পক্ষ থেকে পুলিশ অফিসারদের গালাগাল শুরু হয়। একপর্যায়ে ওদের একজন পুলিশের দিকে তেড়ে আসে এবং মারামারি শুরু হয়। ওদের তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁরা পুলিশের অন্তত দুজনকে ঘুষি মেরেছেন এবং মাটিতে পড়ে থাকা পুলিশদের লাথি মেরেছেন।’

পুলিশকে পিটিয়ে আপাতত হাজতবাস করছেন ম্যাগুয়ার। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে যে, গ্রেপ্তারের পর যেন মামলা করা না হয়, সেটা নিশ্চিত করতে পুলিশকে ঘুষের প্রস্তাব দেওয়া হয়। কিন্তু পুলিশ সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে আইনি পথে হাঁটছে। ম্যাগুয়ারসহ তিনজনকে হাজতে রাখা হয়েছে। এই কাণ্ডের পরও ম্যাগুয়ারের পাশে আছে তাঁর ক্লাব ম্যানইউ। তারা অধিনায়ককে ছাড়িয়ে আনার চেষ্টা করছে। ইতিমধ্যেই সাইরোসের এক আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন ম্যাগুয়ার। তাঁর খুব বড় কোনো শাস্তি হওয়ার সম্ভাবনা দেখছে না ব্রিটিশ মিডিয়াগুলো।

এই বিভাগের আরো খবর