counter রাজশাহীতে আগুনে পুড়ে ছাই ২টি দোকান ও ৪টি ঘর

শনিবার, ১০ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে আগুনে পুড়ে ছাই ২টি দোকান ও ৪টি ঘর

  • 24
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর মহানগরীর জাহাজঘাটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুইটি দোকান ও পাশের বাড়ির চারটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে অন্তত ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের। তবে আগুনে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

রবিবার দুপুর ১২টার দিকে নগরীর ২৯নং ওয়ার্ড সংলগ্ন জাহাজঘাট মোড়ে এ ঘটনা ঘটে । বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিস।

স্থানীয়রা জানান, মাসুদ গার্মেন্টস থেকে শর্ট সার্কিটের কারণে প্রথম আগুনের সূত্রপাত ঘটে। পরে তাৎক্ষনিকভাবে তার পাশের দোকান শাওন এন্টারপ্রাইজ নামে একটি বেকারীর দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। পর্যায়ক্রমে পাশের আরও একটি বাড়িতে আগুন লেগে যায়। আগুনের লেলিহান ও বাড়ির লোকজনের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসে। কিছু বুঝে উঠার আগেই মুহূর্তের মধ্যে দুটি দোকানসহ একটি বাড়ির চারটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এসময় ঘরগুলোতে থাকা লোকজন দ্রুত বের হয়ে আসায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। পরে স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হয়। খবর পেয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দু’টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। দোকান ও বাড়ির সব কিছু পুড়ে যাওয়ায় এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও দোকান মালিক।

দোকান মালিক শহিদুল ইসলাম জানায়, আমি বিভিন্ন এনজিও থেকে লোন নিয়ে আমার এই ব্যবসা শুরু করেছিলাম। স্বপ্ন দেখেছিলাম অনেক দূরে আগানোর। কিন্তু আমার স্বপ্ন আজ স্বপ্নই থেকে গেল।

ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের শরিফুল ইসলাম জানায়, আমিসহ আমার পরিবারের ৩ জন কর্মজীবি। কিন্তু আমার পরিবারের সদস্য সংখ্যা ১৭ জন। কোন রকম আমাদের পরিবার চালাতামা। আগুনে আমাদের সবকিছু পুড়ে গেছে। থাকার যায়গাটি পর্যন্ত আজ শেষ হয়ে গেল।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন লিডার মিজানুর রহমান জানান, জাহাজঘাট এলাকায় দোকানে আগুন লেগেছে এ খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করি। এসময় দুটি দোকানসহ পাশের একটি বাড়ির চারটি ঘর পুড়ে গেছে। দোকানগুলির মধ্যে একটি বিস্কুট বিপনী ও একটি গার্মেন্টস এর দোকান। ক্ষতিগ্রস্থদের দাবি তাদের জিনিসপত্র পুড়ে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই বিভাগের আরো খবর