counter যে কারণে পাকিস্তানে নিষিদ্ধ করা হল একাধিক ডেটিং অ্যাপ

বৃহস্পতিবার, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

যে কারণে পাকিস্তানে নিষিদ্ধ করা হল একাধিক ডেটিং অ্যাপ

  • 1
    Share

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : ‘অনৈতিক’, ‘অশ্লীল’ কাজকর্ম হচ্ছে, এই অভিযোগে পাকিস্তানে ৫টি ডেটিং অ্যাপ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হলো। তার মধ্যে টিন্ডার, গ্রিনাডার, সে হাই ও ট্যাগডসহ একাধিক পরিচিত অ্যাপ রয়েছে। পাকিস্তান প্রশাসনের বক্তব্য, প্রতিটি সংস্থাকেই নোটিস দেওয়া হয়েছিল। উত্তর না মেলায় সাইটগুলোকে ব্লক করা হয়েছে।

এমন সিদ্ধান্তে পাকিস্তান সরকারের সমালোচনা করেছে অধিকার আন্দোলন কর্মীরা। তাদের বক্তব্য, এ ভাবে ব্যক্তি স্বাধীনতা এবং সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে চাইছে পাকিস্তান প্রশাসন।পাকিস্তানে একাধিক ডেটিং অ্যাপ ব্যবহার করতেন সাধারণ মানুষ। সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ওই সমস্ত অ্যাপের জনপ্রিয়তাও ছিল যথেষ্ট। কিন্তু পাকিস্তানের টেলিকম অথোরিটির দাবি, ওই সমস্ত অ্যাপের মাধ্যমে অনৈতিক এবং অশ্লীল কাজকর্ম চলছিল।

জনসংখ্যার নিরিখে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম ইসলামিক দেশ পাকিস্তান। সমকামিতা, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ইত্যাদি বিষয় সেখানে অপরাধ বলে মনে করা হয়। অভিযোগ, ডেটিং অ্যাপের মাধ্যমে ওই ধরনের কাজকর্মই করছিলেন সাধারণ মানুষ। অ্যাপ সংস্থাগুলোকে আগেই এ বিষয়ে নোটিস পাঠানো হয়েছিল বলে টেলিকম অথরিটির দাবি। কিন্তু অ্যাপ সংস্থাগুলো তার কোনও উত্তর না দেওয়ায় তাদের ব্লক করে দেওয়া হয়েছে।

শুধু ডেটিং অ্যাপ নয়, ইউটিইউবের মতো ওয়েবসাইটকেও নোটিস পাঠিয়েছে প্রশাসন। বলা হয়েছে, অশ্লীল কোনও বিষয় যেন সেখানে দেখতে পাওয়া না যায়। ওই ধরনের কনটেন্ট পাকিস্তানের দর্শকদের জন্য ব্লক করে রাখতে হবে।উল্লেখ্য, বিভিন্ন ডেটিং অ্যাপ পাকিস্তানে অত্যন্ত জনপ্রিয়। গত এক বছরে টিন্ডার ডাউনলোড করেছেন চার লাখ ৪০ হাজার মানুষ। সে হাই এবং ট্যাগড ডাউনলোড করেছেন তিন লাখ মানুষ। অন্য ডেটিং অ্যাপগুলোও প্রচুর মানুষ ডাউনলোড করেছেন।

সূত্র : ডয়চে ভেলে ও ডিএনএ ইন্ডিয়া।

এই বিভাগের আরো খবর