counter যুবতী পুরুষ সেজে বহু নারীর সর্বনাশ!

বৃহস্পতিবার, ২২শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

যুবতী পুরুষ সেজে বহু নারীর সর্বনাশ!

  • 2
    Shares

ডেস্কনিউজঃ নাটোরে এক যুবতী তার বন্ধুদের নিয়ে টিকটক ভিডিও তৈরি করে নিজেকে ‘ভাই’ বলে পরিচয় দেন। নিজেকে টিকটক রুপস ভাই বলে পরিচয় দেয়া সেই ব্যক্তিটি আর কেউ নন, তিনি একজন নারী।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি এরই মধ্যে পুরুষ সেজে তরুণীদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে সমকামীসহ এক স্কুলছাত্রীকে হত্যাও করেছেন।

শনিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন এক স্কুলছাত্রীর বাবা।

নাটোর প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, শহরের ওই যুবতী নিজেকে সুদর্শন পুরুষ দাবি করে স্কুল-কলেজগামী ছাত্রীদের প্রেমের প্রস্তাব দেয়। নিজেকে ধনীর সন্তান হিসেবে পরিচয় দিয়ে দরিদ্র পরিবারের মেয়েদের বিলাসী জীবনের স্বপ্ন দেখিয়ে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। এমনকি নিজের দুই হাত কেটে এমনকি বিষ খেয়েও নিজেকে প্রমাণ দেয়ার চেষ্টা করে সে খাঁটি প্রেমিক।

সংবাদ সম্মেলনে ওই ব্যক্তি আরো জানান, পাঁচ মাস আগে তার মেয়ের সঙ্গে ওই টিকটক যুবতীর ভাইয়ের বিয়ে হয়। সম্পর্কে বিয়াইন হওয়ার সুযোগে সে তার মেয়েকে সমকামিতায় যুক্ত করেন। এরপর গত ১৬ আগস্ট রাতে সবার অগোচরে তার মেয়েকে নিয়ে সে পালিয়ে যায়।

এদিকে গত সোমবার ওই যুবতীর বাবা ফোন করে জানান, আপনার মেয়েকে নিয়ে যান। পরে স্ত্রীসহ তিনজন তাদের বাসায় গিয়ে দেখতে পায়, মেয়েকে মারধর করছে।

এ সময় ওই যুবতীর বাবা বলেন, থানা থেকে অভিযোগ প্রত্যাহার করে এসে মেয়েকে নিয়ে যান। একপর্যায়ে ওই যুবতী এসে জোর করে আমার মেয়ের মুখে গ্যাস ট্যাবলেট ঢুকিয়ে দেয়। এরপর অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে নাটোর আধুনিক হাসপাতাল পরে তাকে রামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেলেই আমার মেয়ে মারা যায়।

মেয়ের বাবা অভিযোগ করে আরও বলেন, এ ঘটনায় নাটোর থানায় হত্যা মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি। তারা বলেছে, পোস্টমর্টেম রিপোর্টের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে নাটোর সদর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল মতিন বলেন, এ ধরনের অভিযোগ নিয়ে নাটোর থানায় কেউ আসেনি। তবে রাজাপাড়া থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। মামলা না নেয়ার অভিযোগ সঠিক নয়।

এই বিভাগের আরো খবর