counter মহাস্থানগড়ে চলছে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি

বৃহস্পতিবার, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মহাস্থানগড়ে চলছে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজি

  • 2
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক : বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক মহাস্থানগড়ে হাতি দিয়ে চাঁদাবাজিতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে একটি ক্ষমতাশীল মহল। রাস্তায় গাড়ি আটকিয়ে চাঁদা আদায়ের পাশাপাশি মহাস্থানগড়ে দর্শনার্থীদের কাছ থেকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে জোর পূর্বক ভাবে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন তারা। বর্তমানে করোনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো বন্ধ থাকায় তরুন তরুনীরা তাদের অলস সময় পার করতে মহাস্থানগড়ে অবস্থান করতে আসেন। আর ভরপুর দুপুর হলেই হাতি নিয়ে আসে চাঁদাবাজ সদস্যারা। তাদের নজর থাকে বেশি ভাগ তরুন তরুনীসহ বহিরাগতদের দিকে। বৃহৎ আঁকারের হাতি তাদের সাথে থাকায় সকলে তাদের চাহিদামত টাকা দিতে বাধ্য হচ্ছেন।

ঘটনাস্থলে ভুক্তভুগি তরুন তরুনীরা বলেন, এখানের পরিবেশ খুব সুন্দর ও উন্মুক্ত আছে দেখেই আমরা সময় কাটাতে আসছি। এখানে দুরুত্ব বজায় রেখে আমরা সবাই আলাপ আলোচনা করি। কিন্তু হটাৎ করেই হাতি নিয়ে কয়েকজন এসে আমাদের ভয় দেখিয়ে টাকা নিয়ে যাচ্ছে। হাতির বড় বড় পা আর লম্বা শুঁড়ের ভয়ে আমরা প্রতিবাদ না করে টাকা দিতে বাধ্য হলাম।

মহাস্থানগড়ে নিয়মিত অবস্থানরত এলাকাবাসিরা বলেন, আমরা এর আসে পাশে কৃষি কাজ করি, গরুকে ঘাস খাওনার জন্যেও আসি। আমরা প্রতিদিন দেখি এখানে হাতি নিয়ে এসে সকলের কাছ থেকে তাদের চাহিদামত টাকা আদায় করে নেয়। আমরা প্রতিবাদ করলে তারা এলাকার ক্ষমতাশীল হওয়ায় আমাদের কথা শুনেনা।

চাঁদাবাজ সদস্যদের চাঁদা দাবির বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলেন, আমাদের এলাকায় আমরা ৫০ থেকে ১০০ টাকা করে নিয়ে থাকি। আপনিও টাকা দেন, আমাদের হাতি আপনাকে সালাম দিয়েছে। আমাদের হাতির মালিক আছে আমরা কারো নাম জানাবোনা বলেই তারা দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাই।

এবিষয়ে শিবগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী অফিসার আলমগীর কবির জানান, হাতি নিয়ে চাঁদাবাজির বিষয়টা আমার জানা নাই। বিষয়টি আমার নলেজে থাকলো, পরিদর্শন করে ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর