counter ভাই-ভাবিকে পিটিয়ে যখম, বাবা-মাকে হুমকির অভিযোগ

শুক্রবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভাই-ভাবিকে পিটিয়ে যখম, বাবা-মাকে হুমকির অভিযোগ

  • 2
    Shares

রহিদুল ইসলাম রাইপ, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর রাণীনগরের পারইল ইউনিয়নের তেবাড়িয়া গ্রামে ছেলেকে জমি লিখে দেওয়ায় ভাই ও তার স্ত্রীকে মারপিট করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া বৃদ্ধ বাবা-মাকে বারবার মারপিট করার ভয় ও প্রাণনাশের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে অপর দুই ছেলে। এতে বৃদ্ধ বাবা ও তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

বিষয়টি সমাধান না করলে যেকোন সময় এই পরিবারের ভাইদের মধ্যে বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন গ্রামবাসী।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার তেবাড়িয়া গ্রামের ইয়াছিন আলীর (৬৫) দেড় বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনায় পা ভেঙে যায়। তখন তিনি তার বড় ছেলে পিন্টু সরদারের কাছ থেকে ৫শতাংশ জমি বিক্রি করার নামে টাকা নিয়ে চিকিৎসা করেন। তার ৪ ছেলে ও ২মেয়ে। মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন ইয়াছিন আলী। ছোট ছেলে ঢাকায় থাকে আর পিন্টুসহ ৩ ছেলে বাড়িতে আলাদা ভাবে বসবাস করে। কিন্তু বৃদ্ধ বাবা ও মায়ের বিপদে পাশে থেকে সহযোগিতা করেন বড় ছেলে দিনমজুর পিন্টু। কিন্তু অপর দুই ছেলে ঝন্টু ও বেলাল বাবা-মার দিকে ফিরেও দেখেন না। পিন্টুর কাছে বিক্রি করা সেই জমি ইয়াছিন আলী সম্প্রতি লিখে দেন। এই বিষয়টি ঝন্টু ও বেলাল জানার পর বৃহস্পতিবার রাতে তারা দু’জন পিন্টুকে শয়ন ঘর বাহিরে টেনে এনে বেধরক মারধর করে।
এসময় ঘরের দরজা ভেঙে ফেলা হয়। পরে গ্রামবাসীরা তাকে উদ্ধার করে। এপর পিন্টু আবারও শয়ন ঘরে চলে যায়। পরে ওই দুজন আবার পিন্টু ও তার স্ত্রী-ছেলের ওপর হামলা করলে পিন্টুর স্ত্রী গুরুতর আহত হয়। এছাড়াও ঝন্টু ও বেলাল বাবা বৃদ্ধ ইয়াছিনকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে পিন্টু ও তার বৃদ্ধ বাবা-মা।

ইয়াছিন আলী বলেন, ঝন্টু আর বেলাল খুবই খারাপ। তারা আমাকে দেখে না। পিন্টু আমাকে যেটুকু করে। পিন্টুর পাওনা অংশের জমি আমি লিখে দিয়েছি। এ কারণে ঝন্টু ও বেলাল আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। আমি বিষয়টি গ্রামবাসীকে জানিয়েছি। তারা বলেছে পরিবেশ একটু শান্ত হলে তারা বসবে। আমি ঝন্টু ও বেলালের উপযুক্ত শাস্তি চাই।

অভিযোগকারী পিন্টু সরদার বলেন, বাবা আমাদের সবাইকে সমান জমি দিয়েছেন। বেলাল যখন অনেক টাকা ঋণ করেছিলো তখন বাবা তার জমি বিক্রি করে বেলালের ঋণ পরিশোধ করেছিলো। আর বাবা চিকিৎসা করার জন্য আমার কাছে যে জমি বিক্রি করেছিলেন তা এখন আমাকে লিখে দিয়েছেন। এছাড়া থানায় জিডি করার কারণে তারা আমাকে হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

ঝন্টু ও বেলাল বলেন, বাবা জমি লিখে দেওয়া বিষয়ে আমাদেরকে কিছু বলেননি কেন? তাই আমরা এই কাজ করেছি। আমরাও তো তার ছেলে। আমরাও একটি কথা জানার অধিকার রাখি।

রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহুরুল হক বলেন, সোমবার এই বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি পেয়েছি। সেটি যদি মামলা আকারে লিপিবদ্ধ হয় তাহলে সরেজমিনে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর