counter নরসিংদীর মেয়রের মানবিক কাজের স্ক্রিপ্ট পেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তামিল পরিচালক

সোমবার, ১০ই আগস্ট, ২০২০ ইং, ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীর মেয়রের মানবিক কাজের স্ক্রিপ্ট পেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তামিল পরিচালক

  • 72
    Shares
নিজস্ব প্রতিবেদকঃ এবার নরসিংদীর মানবিক মেয়র কামারুজ্জামান কামরুল এর মানবিক কাজ নিয়ে তামিল মুভির জনপ্রিয়   পরিচালক থিরুমুরুগান আর মুরুগান বাংলাদেশী পরিচালক জয় সরকার এর মতো তাদের দেশে মুভি বানাতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন, তিনি বলেছেন মেয়র কামরুলের মানবিক কাজের প্রপারলী একটা স্ক্রিপ্ট পেলে তামিল মুভি  বানানো সম্ভব, মানে উনি মুভির  জন্য মেয়র কামরুলের মানবিক কাজের পুরো স্ক্রিপ্ট চাচ্ছেন।
তিনি তামিল মুভির পরিচালক,কোরিওগ্রাফার এবং এ্যাড তৈরী করেন,উনার কাজগুলি সম্পর্কে এখন পর্যন্ত যা জানতে পেরেছি তা হলো rudramani,vishaka express, kadhal,emtan magan সহ আরো অনেক।
থিরুমুরাগান আর মুরাগান তার ফেইসবুক ওয়ালে লিখেন, আজ আমি এ পোস্টটি করেছি একজন মানবীয় মানুষকে থ্যাংকস জানাতে, উনার সম্পর্কে জেনেছি আমার ফেইসবুক ফ্রেন্ডসদের মাধ্যমে, উনার আছে তামিল মুভীর নায়কদের মতো অনেক বেশী মানবীয় গুন এবং ক্রাইম প্রতিরোধে একজন ড্যাশিং হিরো, উনাকে মানুষ মানবিক মেয়র বলে ডাকে, উনার কাজগুলি হৃদয় ছুঁয়ে যায়, তিনি হলেন বাংলাদেশের নরসিংদী শহরের মেয়র কামারুজ্জামান কামরুল, উনার অতি মানবীয় গুনাবলীর জন্য বাংলাদেশের ফিল্ম ইন্ড্রাষ্টির ইন্দুবালা মুভি খ্যাত পরিচালক উনার জীবন কাহিনী নিয়ে সিনেমা বানাতে যে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তা সাধুবাদ জানাই, উনার জীবনে মানবীয় গুনাবলীতে ভরপুর, উনার কাহিনী সঠিক ভাবে প্রকাশ পেলে তামিল মুভিও বানানো সম্ভব।উনার কাজগুলোকে দেশ বিদেশের নানা মাধ্যম থেকে সাধুবাদ জানাচ্ছে।এই মেয়র নিজেকে জনগনের সারভেন্ট বলেন, নিজের ব্যবসায়িক ইনকাম নিজের না ভেবে তিনি ভাবেন উনার যা কিছু আছে সব জনগনের! তিনি কখনোই নিজের জীবনের তোয়াক্কা করেন না, প্রয়োজনে রাস্তায় রাত কাটাতে কোনো দ্বিধা নেই।
উনি যদি জানতে পারেন উনার এলাকার কোনো মানুষ খাদ্য সমস্যায় ভুগছেন তখন তিনি কাউকে না জানিয়ে নিরবে রাতের আঁধারে খাদ্য পাঠিয়ে দেন।এই মেয়র কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস  এ্যাটাকের শুরু থেকে নিজের জীবনের তোয়াক্কা না করে নিজে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ নিয়ে আজ-অব্দি যার যা দরকার তা নিজ হাতে নিজ খরচে পৌঁছে দিয়ে যাচ্ছেন।
সরকারী অনুদান তো আছেই এর পরেও তিনি করোনার সময়ে নিজ খরচে ৫০,০০০ হ্যান্ড সেনিটাইজার,
৫০,০০০ লিকুইড সাবান,
৫০,০০০ মাক্স,
এবং শহরের সকল সড়কে ব্লিচিং পাউডার মিশানো পানি ছিটানো।
২০,০০০ পরিবারকে ত্রান সামগ্রী বিতরন যা এখনো চলমান।
৫ হাজার মানুষকে পুরা রমজানে মজাদার খাদ্য বিতরণ,
২৫ হাজার মানুষকে ঈদের দিন
মোরগের রোষ্ট/ পোলাও /ডিম/ফিরনি/বিশুদ্ধ খাবার পানির বোতল বিতরন.
৫ হাজার পিপিই বিতরণ
৮টি জীবাণু নাশক ট্যানেল স্থাপন করেছেন,
এছাড়া নিজে ক্ষেত থেকে কৃষকের ধান কেটে দিয়েছেন এবং কৃষকদের প্রয়োজন মতো তিনি ধান কাটার মেশিন দেওয়া সহ নানাবিধ সহযোগীতা করেন, শহর পরিষ্কারের কাজ মেয়র নিজ হাতে সব সময় করেন।
এই মেয়র শুধু করোনাকালীন সময়েই শুধু নয় তিনি সারা বছরই অভাবী মানুষের পাশে থাকেন,উনার সিটির কাউকে তিনি অভুক্ত রাখেন না,কাউকে খালি হাতে ফিরাননা, উনি জনতার জন্য হাসি মুখে মরতে পারেন।
মেয়র তোমার কাজগুলি দেখে আমার অনেক ভালো লেগেছে,তাই তোমাকে হৃদয় থেকে জানাই অনেক ধন্যবাদ,
Thirumurugan R murugan
Director and choreographar(tamil film industry).
Today I’m posting this to thank a person with great humanity,I’ve known about him from my facebook friends,he is a person of great humanity & a dashing hero against all crimes just like the hero of a Tamil movie.
people call him mayor of humanity,his works touch the hearts of people,he is Kamaruzzaman Kamrul,mayor of Narsingdi city of Bangladesh,due to his great humanitarian qualities,the director of Bangladeshi film industry known for the movie- Indubala,is eager to make a film based on his life & so I cordially thank him,his life is filled with great human virtues,if his stories are properly shown,it is possible to make a Tamil film.
His works are being praised by many national & international medias.
This mayor calls himself the servant of people,he considers the income of his own businesses as his people’s,rather than his own!
He never cares of his own life.If needed,he does not hesitate to spend nights on roads.
If he listens of anyone’s food crisis,he sends food in front of their houses,silently in night,not informing anyone.
In this corona crisis,not caring of his own life,this mayor,since the beginning of corona attack till now,he himself is keeping the updates of every family,reaching there by himself & filling the needs of them with his own expense.
Besides the funding of the government,he took the expenditure of 50000 hand sanitizers,50000 liquid soaps,50000 masks & for the spraying of bleaching powder mixed water on over the city roads.
20000 families are being given relief by him(on-going).
Also the delivery of delicious food to 5000 people throughout Ramadan,25000 people had been delivered with roasted chicken,polao,eggs,firni,pure water on the day of Eid.
5000 ppe have been delivered,8 microb killer tunnels were established by him.
Besides,he has helped the farmers in cutting paddy & has delivered paddy cutter machines  according to the needs of farmers.
This mayor helps to clean the city by his own hands.
This mayor,not only in this time of corona,but throughout the year,remains beside the poor people,he never lets anyone stay without food,he never lets anyone go empty handed,he can die for his people with a smiling face.
I’m pleased by your works,I thank you from the core of my heart.
Thirumurugan R murugan
Director and choreographar(tamil film industry)

এই বিভাগের আরো খবর