counter তাড়াইলে ৮ চিকিৎসক ও ১২স্বাস্থ্যকর্মীসহ ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত

রবিবার, ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

তাড়াইলে ৮ চিকিৎসক ও ১২স্বাস্থ্যকর্মীসহ ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত

  • 22
    Shares

মুকুট দাস মধু,তাড়াইল(কিশোরগঞ্জ): কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে এখন পর্যন্ত চিকিৎসক সহ ২৬ জনের দেহে মরনঘাতী কোভিড-১৯ (নভেল করোনা ভাইরাস) এর সংক্রমন পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, সারা বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়েপরা করোনা ভাইরাসের থাবা থেকে মুক্ত নয় উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের জনগন।এরই মধ্যে তাড়াইল-সাচাইল (সদর) ইউনিয়নসহ তালজাঙ্গা ও রাউতি ইউনিয়নে সনাক্ত হয়েছে করোনা সংক্রমিত রোগী।

উপজেলা ৫০ শয্যাবিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.আলমাছ হোসেন জানান, কোভিড-১৯ (নভেল করোনা ভাইরাস) প্রতিরোধে সরকারের নির্দেশনায় বিগত ৭ মার্চ থেকে আজ ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক,স্বাস্থ্যকর্মীসহ উপজেলার মোট ১৮১ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছে।এর মধ্যে ১২০ জনের নমুনার রিপোর্ট পাওয়া গেছে।বাকী ৬১ জনের নমুনার রিপোর্ট পেন্ডিং আছে।তাছাড়া কিট এর সংকটের কারনে মাঝে দুইদিন নমুনা সংগ্রহ বন্ধ ছিলো।

তিনি আরও জানান,১২১জনের রিপোর্টে ২৬ জনের দেহে করোনা ভাইরাসে পজেটিভ পাওয়া গেছে এবং বাকী ৯৫ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।এর মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসারসহ ৮জন চিকিৎসক ও ১২ জন স্বাস্থ্যকর্মী এবং অন্যান্য ইউনিয়নে ৬ জন আক্রান্ত হয়েছে। তাছাড়া বিভিন্ন ইউনিয়নের ৫ জন এবং পার্শবর্তী ইটনা উপজেলার রায়টুটী ইউনিয়নের একজন।সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ২৬ জন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৮জন চিকিৎসক, নার্স ৪ জন,স্যাকমো ২ জন,অফিস ক্লার্ক ১জন,আয়া ১ জন, সুইপার ১জন, ওয়ার্ড বয় ১ জন, মিডওয়াইফ ১ জন, প.প.ভিজিটর ১জনসহ মোট ২০জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত।তাছাড়া উপজেলার তালজাঙ্গা ইউনিয়নের ভাটগাঁও গ্রামে ১ জন,রাউতি ইউনিয়নের শিমুল আটি গ্রামে ১ জন, তাড়াইল-সাচাইল (সদর) ইউনিয়ের দড়িজাহাঙ্গীরপুর গ্রামে ১ জন,সহিলাটি গ্রামে ১ জন এবং পার্শবর্তী ইটনা উপজেলার রায়টুটী ইউনিয়নের পঁচাশিয়া গ্রামের ১ জনসহ মোট ২৬ জন কোভিড-১৯ (নভেল করোনা)ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্যকর্মী ছড়া অন্যান্যদের হিস্ট্রি থেকে জানা যায়, সংক্রমিত ৬ জনের মধ্যে ৩ জনই নিজ নিজ কর্মস্থল ঢাকা,নারায়নগঞ্জ এবং ময়মনসিংহ থেকে বাড়িতে এসেছে।অপর এবজন ৭০ বয়সী বৃদ্ধা স্থানীয় মসজিদে তাবলীগ জামাতের টাচে থেকে সংক্রমিত হয়েছে বলে ধারনা করছেন এলাকার লোকজন।তাছাড়া ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে চাকুরীরত সহিলাটি গ্রামের একজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর নিজ এলাকা তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একাধিক চিকিৎসকের ধারনা পার্শবর্তী ইটনা উপজেলার রায়টুটী ইউনিয়নের পঁচাশিয়া গ্রামের করোনায় আক্রান্ত রোগী থেকেই স্বাস্থ্যকর্মীগন আক্রান্ত হয়েছেন।কারণ হিসেবে বলেছেন,ঐ রোগী ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরে এলাকায় ঝগড়ায় জড়িয়ে আহত হয়ে তাড়াইল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়।চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় সর্দিকাশির লক্ষন দেখা দিলে নমুনা পরীক্ষায় তার দেহে করোনার উপস্থিতি ধরা পরে। তারপর থেকেই নমুনা পরীক্ষায় একে একে ২০ জন স্বাস্থ্যকর্মী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়।

করোনায় আক্রান্ত হওয়া ৮ জন চিকিৎসকদের মধ্যে ২ জন ময়মনসিংহ এসকে হাসপাতালে চিকাৎসাধীন থেকে গতকাল (৩০ এপ্রিল) সুস্থ্য হয়ে ছাড়া পেয়েছেন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনায় আক্রান্ত হওয়া ওয়ার্ড বয়ের টাচে থেকে স্ত্রী ও কন্যা করোনায় সংক্রমিত হয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে আছে।

 

এই বিভাগের আরো খবর