counter ছেলের হাতে জন্মদাতা পিতা আহত

শনিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ছেলের হাতে জন্মদাতা পিতা আহত

  • 59
    Shares

মোস্তাফিজুর রহমান জীবন, রাজশাহীঃ রাজশাহী জেলার দূর্গাপুর উপজেলার ১ নং নওপাড়া ইউনিয়ন আলিপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী (৭০) পিতা মৃত সাদেক আলি চৌধুরী। কে গত ২৪ শে আগষ্ট সোমবার বিকাল ৪ ঘটিকার সময় তার দুই ছেলের হাতে আহত হন।দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী( ৭০) তার মেয়ের বাসায় বেড়াতে যায়,মেয়ের বাসা হতে মেয়েকে নিয়ে আসেন বাসায়। বাসায় আসার পর বড় ছেলে মোঃরুবেল চৌধুরী (৩৫) আলিপুর বিএম কলেজের ল্যাব অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে চাকুরী করেন।ছোট ছেলে মোঃ ফিরোজ চৌধুরী (২৮) মাদকাসক্ত। দুই ছেলে পারিবারিক কলোহের জেরে এক পর্যায়ে পিতা মোঃদেলোয়ার হোসেন চৌধুরী কে বেধর পড়ে থাকা লাঠি দ্বারা মার পিট করে এসময় দেলোয়ার হোসেনের চৌধুরীর মেয়ে মোছাঃসাহিনুর বেগম (৪০) এগুতে গেলে আগে মাদকাসক্ত ছোট ভাই ফিরোজ বড় বোন কে মারতে শুরু করে। পরে আরেক ভাই রুবেল চৌধুরী ও তার বোন সাহিনুর কে বেধর মারধর করে। রুবেল চৌধুরী ও ফিরোজ চৌধুরীর হাতে কঠিন নির্যাতনের শিকার হয়ে বাবা ও মেয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তাদের চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন এসে তাদের দূর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেে ভর্তি করেন। ভুক্তভোগী দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী বাদী হয়ে গতকাল সোমবার রাতে দূর্গাপুর থানায় দুই ছেলের নামে অভিযোগ দায়ের করেন। কতবড় পাসন্ড হলে পিতা ও বড় বোন কে মারতে পারে এনিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের ভিতরে প্রশ্ন জেগেছে।  একজন শিক্ষক কিভাবে তার পিতাকে ও বড় বোন কে মার ধর করতে পারে।  তার কাছ হতে কি শিখবে সচেতন মহল। তার এমন আচারনে তৃীব্র নিন্দা জানিয়েছে সচেতন মহল। পাসন্ড ছেলে রুবেল ও ফিরোজ  এর দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি সুশীল সমাজের। এবিষয়ে জানতে চাইলে দূর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খুরশিদ বানু কণা বলেন,অভিযোগ পেয়েছি দূত তদন্ত করে ব্যবস্হা গ্রহনের আস্বাস দেন।কোন অপরাধী কে ছাড়া দেওয়া হবে না।যে বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি তা দুঃখ জনক।

এই বিভাগের আরো খবর