counter খাশোগি হত্যা: টেপ ও নথির কথা স্বীকারে সিআইএকে নির্দেশ

মঙ্গলবার, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

খাশোগি হত্যা: টেপ ও নথির কথা স্বীকারে সিআইএকে নির্দেশ

  • 1
    Share

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার একটি টেপ রেকর্ডিং হাতে থাকার কথা স্বীকার করতে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছেন নিউইয়র্কের এক বিচারক। মানবাধিকারকর্মীরা এই আদেশকে স্বাগত জানিয়েছেন। এ ছাড়া কেন তারা এই টেপ ও বিভৎস হত্যাকাণ্ডের নথি গোপন রেখেছেন, তার ব্যাখ্যা দিতে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ও জাতীয় গোয়েন্দা পরিচালকের কার্যালয়কে (ওডিএনআই) নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে শ্বাসরোধে হত্যা করে তার শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ কেটে টুকরো টুকরো করে দেয়া হয়েছে। নিজের তুর্কিশ বাগদত্তাকে বিয়ে করতে তিনি কনস্যুলেটে নথি আনতে গিয়েছিলেন। তার এই হত্যাকাণ্ডে বিশ্বজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। এতে সংস্কারের মাধ্যমে ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে যাওয়া সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান বিপাকে পড়ে যান। সিআইএর তদন্ত বলছে, এই হত্যাকাণ্ডের জন্য যুবরাজ দায়ী। ফলে রিয়াদের সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্কের টানাপোড়েন শুরু হয়ে যায়।

পরে যুবরাজকে সুরক্ষার দাবি করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রবীণ সাংবাদিক বব উডওয়ার্ডের বইয়ের তথানুসারে, তাকে রক্ষার কথা তিনি গর্ব করে বলেছিলেন। এই গুপ্তহত্যাসংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা নথি পেতে তথ্যস্বাধীনতার অধীন ধনকুবের জর্জ সোরোসের প্রতিষ্ঠিত দ্য ওপেন সোসাইটি জাস্টিস ইনিশিয়েটিভ একটি মামলা করেছিল। নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে সিআইএ এবং ওডিএনআই তাদের আবেদন প্রত্যাখ্যান করে নথি থাকার কথা নিশ্চিত করেনি। পরে সংস্থাটি আইনের আশ্রয় নেয়।

শুনানিতে বিচারক পল এনগেলমেয়ার ২০১৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের একটি বক্তব্যের উদ্ধৃতি দেন। যেখানে ট্রাম্প বলেন, আমাদের কাছে টেপ আছে। শুনানিতে নথি প্রকাশের নির্দেশ দেননি বিচারক। তবে ট্রাম্প প্রশাসন যেখানে এই হত্যাকাণ্ডের নথি লজ্জাজনকভাবে ঢেকে রাখতে চাচ্ছে, সেখানে এটিকে একটি বড় বিজয় বলে দাবি করে ওপেন সোসাইটি। ফাউন্ডেশনের প্রধান আইনজীবী অমৃত সিং বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের দায়মুক্তির অবসানের দিকে এই রায় একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

এই বিভাগের আরো খবর