counter এবার আত্মহত্যার ঘোষণা রানীর

বুধবার, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এবার আত্মহত্যার ঘোষণা রানীর

  • 4
    Shares

বিনোদন ডেস্ক :  একে একে বলিউড তারকাদের মানসিক অবসাদের কথা উঠে আসছে মিডিয়ায়। অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর থেকেই এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে শংকা প্রকাশ করেছেন অনেক। এবার ভোজপুরি সিনেমার জনপ্রিয় নায়িকা রানি চট্টোপাধ্যায় আত্মহত্যার ঘোষণা দিলেন।

সম্প্রতি রানি এক দীর্ঘ ইনস্টাগ্রাম পোস্টে জানালেন, ধনঞ্জয় সিং নামে এক ব্যক্তি গত কয়েক বছর ধরে তাকে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমানে বিরক্ত করে যাচ্ছেন। যার ফলে তার ব্যক্তিগত জীবনে খুবই সমস্যা হচ্ছে। এই বিষয়ে তিনি পুলিশের সাইবার সেলের কাছেও গিয়েছিলেন সাহায্য চাইতে। কিন্তু সেখানকার আধিকারিকরা তার অভিযোগ নিতে অস্বীকার করেন। তাদের বক্তব্য, ফেসবুকে ধনঞ্জয় যে সব পোস্ট করেছেন তার কোনোটাতেই রানির নাম নেই।

তবে রানি চট্টোপাধ্যায়ের দাবি, ধনঞ্জয় নামের ওই ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় তার চেহারা নিয়ে কটূক্তি করেন। তাকে বয়স্ক প্রমাণ করার চেষ্টা করেন এবং জনসমক্ষে তাকে গালিগালাজও করেন।

রানি আরও জানিয়েছেন, তার বন্ধুবান্ধব ও সহকর্মীরা ওই ব্যক্তির কাজকর্ম এবং কথাকে পাত্তা না দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু এভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার বিরুদ্ধে করা পোস্টকে এড়িয়ে বেঁচে থাকা তার পক্ষে সম্ভব নয়।

মানসিকভাবে ভেঙে পড়া রানি জানান, এভাবে চলতে থাকলে তাকে ভবিষ্যতে হয়তো আত্মহত্যার পথই বেছে নিতে হবে। এমন কোনো পরিস্থিতি তৈরি হলে তার জন্যে দায়ী থাকবেন ধনঞ্জয় নামক ব্যক্তিই।

রানি এই বিষয়ে মুম্বই পুলিশেরও সাহায্য চেয়েছেন। তিনি বলেন, পোস্টে কোথাও তার নামের উল্লেখ না থাকলেও তিনি নিশ্চিত প্রতিটি কটূক্তি তাকে লক্ষ্য করেই করা।

ইনস্টাগ্রাম পোস্টে রানি লিখেছেন, ‘আমি মুম্বাই পুলিশকে অনুরোধ করব আমি যদি আত্মহত্যার পথ বেছে নিই, তাহলে যেন আমার মৃত্যুর জন্যে ধনঞ্জয়কেই দায়ী ধরা হয়। আমার পক্ষে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। আত্মহত্যাই এখন একমাত্র রাস্তা। এভাবে আর সহ্য করতে পারছি না।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযুক্ত ব্যক্তির বেশ কিছু ছবিও শেয়ার করেছেন রানি চট্টোপাধ্যায়।

উল্লেখ্য, সুশান্তর মৃত্যুর পর বলিউডসহ অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রির তারকারা একে একে নিজেদের আত্মহত্যা, হতাশা, আত্মহত্যার পরিকল্পনার কথাও প্রকাশ করেছেন। যেখানে তারা জানান নানা কারণে তারা নিজের জীবনকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর