counter এদেশে ঈদ যেভাবে ছিনতাই হয়!!

শনিবার, ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এদেশে ঈদ যেভাবে ছিনতাই হয়!!

  • 21
    Shares

হাশিম রনি: একমাস সিয়াম পালন। রহমত, মাগফেরাত আর নাজাতের মাস শেষে পবিত্রতার আবহে আসে খুশির ঈদ। ঈদের সাথে পবিত্রার সম্পর্ক অঙ্গাঙ্গি । ঈদ মানে খুশী। ঈদের দিনটা আমাদের প্রজন্ম খুশী হিসেবে নেয়, কিন্তু পবিত্রতা ভুলে যায়। ঈদের আনন্দে ছেলেরা সিনামায় ঢোকে, জুয়া খেলতে বসে, মঞ্চ বানিয়ে হিন্দী গান ছেড়ে ড্যান্স করে, বান্ধবীদের নিয়ে ঘুড়তে যায়, কেন? খুশীতে, ঠেলায়।

আমাদের টিভি চ্যানেলগুলোতে নাটক বানানোর হিড়িক পড়ে। ভালোবাসাবাসি, ভাড়ামো, চুইট্টামো। ইদানিং আবার নাটকগুলোতে অশ্লীলতার ছড়াছড়ি, ধরাধরি বেড়েছে ব্যাপকহারে। পরিবারের সিনিয়র সদস্যদের সাথে একসাথে বসে এগুলো দেখা দায় । ঈদের দিন থেকে শুরু হয়ে একটানা চলতে থাকে সপ্তাহব্যাপী বা আরো বেশি সময়ের নাট্য যন্ত্রণা । কোনভাবেই ঠাহর করার উপায় থাকে না যে, এই মিডিয়াগুলো মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশের এবং এই জাতির একটা বৃহত্তম অংশ মাত্রই একমাস রহমত, মাগফেরাত আর নাজাতের সিয়াম সাধনা করেছে।

এভাবেই ঈদ ধর্ম থেকে ছিনতাই হয়ে উৎসবে পরিণত হয় তাও আবার মুসলিম উৎসব নয়, পার্শ্ববর্তী দেশের অনুরূপ উৎসবে। অথচ এই টিভি চ্যানেলগুলোই বড়দিনে যিশু নিয়ে নির্মিত সিনেমা চালায়। মাঘি পূর্ণিমাতে বুদ্ধদেবকে নিয়ে নির্মিত ডকুমেন্টারি প্রচার করে আর জন্মাষ্টমিতে শ্রীকৃষ্ণকে নিয়ে অনুষ্ঠান নির্মাণ করে। অথচ ইসলামের সবচেয়ে উৎসব হয়ে পূর্ণ হয়ে ওঠে হাজারো নোংরামিতে। এই বর্ণ বৈশম্য কি এরা কোন এজেন্ডা নিয়ে করে? আপনার মতামত কী?

এই বিভাগের আরো খবর